Text size A A A
Color C C C C
পাতা

সিটিজেন চার্টার

জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিস, চট্টগ্রাম (ডিইএমও) এর

The Citizen’s Charter

১৯৪৭ সালে দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধোত্তর অত্র জেলা অফিসটি চাকরি বিনিয়োগ কেন্দ্র ( Employment Exchange)  হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়।  ১৯৭৬ সালে সরকার অত্র চাকরি বিনিয়োগ কেন্দ্রের নাম পরিবর্তন করে জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিস নামকরণ করা হয়। জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিস, চট্টগ্রাম কার্যালয়টি জনশক্তি,  কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো এবং প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণাধীন একটি জেলা অফিস। প্রতিষ্ঠালগ্ন হতে এ দপ্তরটি বাংলাদেশী কয়েক লক্ষ কর্মীর দেশে-বিদেশে কর্মসংস্থানের সুয়োগ সৃষ্টি,আত্ম-কর্মসংস্থানে সহায়তা, শ্রম বাজারের তথ্যাবলী সংগ্রহ ও গবেষণার তথ্য ও উপাত্ত সংগ্রহ স্থানীয় রিক্রুটিং এজেন্সী সমূহের তদন্ত কাজ , প্রবাসী কর্মীদের কল্যাণমূলক কার্যক্রম সম্পাদনসহ আধুনিক বিশ্বের চাহিদা অনুযায়ী প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ জনশক্তি তৈরি ও জনশক্তির সুষ্ঠু ব্যবহারসহ নানারূপ কল্যাণমূলক কর্মকান্ডে নিয়োজিত রয়েছে।

২০১০ সালে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় কর্তৃক এক পরিপত্র জারীর মাধ্যমে জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিস গুলোর কার্যক্রম ৫টি শাখায় বিভক্ত করে নতুন ভাবে কার্যক্রম পূণঃ বিন্যাস করা হয়।

 

বিষয়ঃ  বিদেশ গমনেচ্ছু  কর্মীদের সহায়তা প্রদান ও প্রবাসী কর্মীদের কম্যাণমূলক সেবা প্রদানে জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি 

           অফিসের (DEMO) দায়িত্ব-কর্তব্য ও কার্যসম্পাদন পদ্ধতি সম্পর্কে নির্দেশাবলী।  

 

            বাংলাদেশের অর্থনীতিতে বিপুল সংখ্যক প্রবাসী কর্মীর অবদানের গুরুত্ব অনুধাবন করে পরিবর্তিত বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটে বিদেশে গমনেচ্ছু কর্মীদের সহায়তা প্রদান ও বিদেশে কর্মরত প্রবাসী বাংলাদেশী ও দেশে তাদের পরিবার পরিজনকে কল্যাণমূলক সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে মাঠ পর্যায়ে কর্মকান্ড গতিশীল ও স্বচ্ছ করার লক্ষ্যে জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো এবং উহার অধীনে পরিচালিত জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি  অফিস সমূহ কর্তব্য সম্পাদনে নিম্নবর্ণিত নির্দেশাবলী আবশ্যিকভাবে অনুসরণ করবে এবং সংশ্লিষ্ট সকল দপ্তর/প্রতিষ্ঠান প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান করবেঃ-          

জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিস নিম্নোক্ত কার্যাবলী সম্পাদন করবেঃ-

জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসের কাজকর্মকে সুসংগঠিতভাবে পরিচালনার নিমিত্তে কাজগুলোকে নিম্নবর্ণিত ৫ টি শাখায় বিভক্ত করে পরিচালনা করবেঃ

(ক) নিবন্ধন ও পরামর্শ শাখা:

(খ) কল্যাণ শাখা:

(গ) উন্নয়ন, প্রচার ও এনজিও শাখা :

(ঘ) অভিযোগ, তদন্ত ও সহায়তা প্রদান শাখা : এবং

(ঙ) প্রশাসন ও হিসাব শাখা।

(ক)       বিদেশ গমনেচ্ছুদের বিদেশে কর্মরত ও বিদেশ থেকে ফেরৎ কর্মীদের নিবন্ধন ও তথ্যাবলী ডাটাবেজ  সংরক্ষণ ও প্রয়োজনে সরবারাহ করণ।

(খ)        প্রবাসী কর্মীদের বিষয়ে সুনির্দিষ্ট তথ্য সংগ্রহের উদ্দেশ্যে জরীপ কাজ চালানো বা জরীপ কাজে সহায়তা করা।

             (গ)        প্রবাসী কর্মীদের দেশে এবং বিদেশে কল্যাণ ও সুরক্ষা সংক্রান্ত কাজে সহায়তা প্রদান।

(ঘ)        প্রবাসী কর্মীদের পরিবারের পক্ষে সরকারের বিভিন্ন সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের সাথে যোগাযোগ করে সেবা প্রাপ্তিতে সহায়তা প্রদান।

(ঙ)        বিদেশে চাকরী নিয়ে গমনের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান এবং প্রশিক্ষণ ও অন্যান্য বিষয়ে পরামর্শ প্রদান।

(চ)        প্রবাসীদের নিকট থেকে প্রাপ্ত অভিযোগ সম্পর্কে অনুসন্ধান/তদন্ত করা এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট প্রেরণ।

(ছ)        বিদেশে মুত্যুবরণকারী বা দূর্ঘটনার শিকার হওয়া কর্মীদের মৃত দেহ দেশে আনা/দাফন/সৎকার করা এবং ক্ষতিপুরণের অর্থ বিতরণে সহায়তাকরণ।

             (জ)       দেশে এবং বিদেশে চাকুরীর চাহিদা, বিজ্ঞপ্তি সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য সংগ্রহ, সংরক্ষণ ও প্রচার।

(ঝ)        বিদেশ থেকে প্রত্যাগতদের দেশে কর্মসংস্থান লাভ/স্বকর্মসংস্থান/বিনিয়োগ/ব্যবসা বাণিজ্যের ক্ষেত্রে পরামর্শ ও সহায়তা প্রদান।

             (ঞ)       বিদেশ গমনেচ্ছু নারী কর্মী এবং প্রবাসী নারী কর্মীদেরকে সহায়তা প্রদানে বিশেষ নজর   প্রদান।

             (ট)        অভিবাসন সম্পর্কিত আর্ন্তজাতিক দিবস/কর্মসূচী যথাযথভাবে্ পালন।

(ঠ)        নিরাপদ অভিবাসনের লক্ষ্যে প্রচার প্রচারণা চালানো এবং অভিবাসন কাজে সম্পৃক্ত এনজিওদের কাজ সমন্বয় ও সহায়তা  প্রদান।

(ড)        বিদেশ গমনেচ্ছু কর্মীদের অভিবাসন খরচের অর্থায়ন ও বিদেশ হতে স্বল্প খরচে রেমিটেন্স প্রেরণের ক্ষেত্রে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক ও অন্যান্য ব্যাংকিং সেবা লাভে সহায়তা করণ।

             (ঢ)        সরকারী ভাবে কর্মী সংগ্রহের ক্ষেত্রে আরোপিত দায়িত্ব পালন।

             (ণ)        অভিবাসী কর্মীদের জন্য সরকারের গৃহীত উন্নয়ন কর্মসূচী/ প্রকল্প বাস্তবায়ন।

             (ত)        বর্হিগমন অধ্যাদেশ ১৯৮২ অনুযায়ী মামলা দায়েরের ক্ষেত্রে প্রসিকিউশন অফিসারের দায়িত্ব পালন।

             (থ)        রিক্রুটিং এজেন্সীর কর্মকান্ড সম্পর্কিত প্রতিবেদন প্রেরণ এবং

             (দ)       কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সময়ে সময়ে প্রদত্ত অন্যান্য আদেশ পালন।

 

প্রবাসী কল্যাণ ডেস্ক, শাহ আমানত আর্ন্তজাতিক বিমান, চট্টগ্রাম এর  কার্যক্রমঃ

অত্র জেলা অফিসের নিয়ন্ত্রণাধীন প্রবাসী কল্যাণ ডেস্ক বিদেশ গমনেচ্ছু এবং বিদেশ প্রত্যাগত কর্মীদের বিমান বন্দরে সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে ১৯৮২ সালে শাহ আমানত আর্ন্তজাতিক বিমান বন্দর, চট্টগ্রামে প্রবাসী কল্যাণ ডেস্ক স্থাপন করা হয়। বিমান বন্দরে বিদেশ গমনেচ্ছু ও বিদেশ প্রত্যাগত কর্মীদের সার্বিক কল্যাণমূলক কার্যক্রম প্রবাসী কল্যাণ ডেস্কের মূল কার্যক্রম। ডেস্কের দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তাগণ বিএমইটি কর্তৃক বর্হিগমন ছাড়পত্র ফিঙ্গার ইমপ্রেশান ও কার্ড রিডার মেশিনের মাধ্যমে অন-লাইনে যাচাই পূর্বক ছাড়পত্রের সঠিকতা নিশ্চিত করণ, বিদেশে মৃত্যুবরণকারী কর্মীর লাশ গ্রহণ ও নিকট আত্মীয়র নিকট হস্তান্তর এবং লাশ পরিবহন ও দাফন বাবদ বৈধতার ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের নিরিখে ৩৫,০০০/- (পঁয়ত্রিশ হাজার) টাকার আর্থিক সহায়তা প্রদান। বিদেশে অসুস্থ, পঙ্গু ও আহত অবস্থায় দেশে ফেরত আসলে, তাঁদেরকে গ্রহণ এবং বিএমইটির নির্দেশনা মোতাবেক প্রয়োজনে হাসপাতালে ভর্তি, পরিবহণ ও নিকট আত্মীয়ের নিকট হস্তান্তর। এছাড়াও বিমান বন্দরে সরকারি উর্দ্ধতন কর্মকর্তা ও প্রবাসী সিআইপি ও স্পেশাল প্রিভিলেজ কার্ডধারীদের প্রটোকল সহায়তা প্রদান, ইত্যাদি।

 

অভিবাসী তথ্য কেন্দ্র (Migrants  Resource Center):

 

বিশ্বায়নের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় ‘‘নিরাপদ অভিবাসন’’ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ‘‘নিরাপদ অভিবাসন’’ হল বিদেশগামী কর্মীদের নিরাপদে বিদেশ গমন এবং সাফল্য অর্জন করে দেশে ফিরে পরিবার ও সমাজের সাথে মিলিত হয়ে সফলভাবে জীবন-যাপন। নিরাপদ অভিবাসনে, সঠিক তথ্য প্রদানের জন্য বিগত ৩১/০৩/২০১১ইং তারিখে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (IOM)এর সহায়তায় জেলা জনশক্তি ও র্কমসংস্থান অফিস, চট্টগ্রামে‘‘অভিবাসী তথ্য কেন্দ্র’’ (MRC) চালু করা হয়েছে। তথ্য প্রদান করার জন্য একজন ভারপ্রাপ্ত তথ্য কর্মকর্তা নিযুক্ত করা আছে।  এই তথ্যকেন্দ্র থেকে নিরাপদ অভিবাসন সংক্রান্ত সকল তথ্য সেবা প্রদান করা হয়। যেমনঃ-

·        ডাটাবেজে নাম নিবন্ধন সংক্রান্ত সরকারীভাবে বিদেশ যাওযার জন্য তথ্য/সহায়তা।

·         বিভিন্ন প্রশিক্ষণ সংক্রান্ত তথ্য।

·         ভিসা যাচাই ও চাকরির চুক্তি সংক্রান্ত তথ্য।

·        মেডিকেল পরীক্ষা সংক্রান্ত তথ্য।

·        MRPপাসপোর্ট সংক্রান্ত তথ্য।

·         বর্হিগমন ছাড়পত্র সংক্রান্ত তথ্য।

·        মৃত বিদেশ কর্মীর ক্ষতিপূরণ পাওয়া সংক্রান্ত তথ্য।

এছাড়াও নিয়মিত অডিও-এর মাধ্যমে বিদেশগামী কর্মীদের বিদেশ গমনের পূর্ববর্তী ও পরবর্তী কার্যক্রমের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য প্রদান করা হয় এবং ভিজ্যুয়াল এর মাধ্যমে ডকুড্রামা, নিরাপদ অভিবাসন সংক্রান্ত তথ্য চিত্র প্রদর্শন করা হয়।তথ্য কেন্দ্র থেকে বিদেশ যেতে ইচ্ছুক বা বিদেশগামী কর্মীদের উৎসাহিত করার জন্য বিভিন্ন ধরনের পোষ্টার, লিফলেট , হ্যান্ডবুক প্রদান করা হয়।